২/২, ব্লক-এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা
৮৮০-২-৮৮০-২-৯১১

’আমার জীবন-আমার অধিকার-বাল্যবিয়ে রুখবো এবার’

হ্যা-এভাবেই কন্ঠে কন্ঠ মিলিয়ে শ্লোগানে শ্লোগানে মুখরিত করে বাল্য বিবাহের বিরুদ্বে শক্ত প্রাচীর গড়ে তুলেছে বাংলাদেশের সর্ব দক্ষিনে অবস্থিত শরণখোলা উপজেলার ৫০০ কিশোরী নারী।

দল বেধেছি আমরা সবাই-বাল্য বিয়ে রুখবো যে তাই’, আমার শৈশবকে কেড়ে নিও না’– সহ অসংখ্য সাহসী পদক্ষেপ আর শ্লোগানের কারনে শরণখোলা উপজেলায় বাল্যবিবাহ লোকালয় থেকে পালিয়ে চুরি করে করানোর পর্যায়ে রুপ নিয়েছে, আর সেখানেও গড়ে তোলা হয়েছে প্রতিরোধের চেক পয়েন্ট। শ্লোগান এসেছে  – Stop Stealing my Childhood’

জাতীয় কন্যাশিশু অ্যাডভোকেসি ফোরামের সদস্য সংগঠণ ভয়েস অফ সাউথ বাংলাদেশ বিবাহিত কিশোরীদের মাঝে স্টাডি করে নিশ্চিত হয়েছে যে,  গ্রামাঞ্চলে বাল্য বিবাহের নামে যে জোরপুর্বক বিয়েগুলো হয়, তার শতকরা নব্বই  ভাগ কিশোরীদেরই সন্মতি থাকে না। এমনকি এই অনাচারের বিরুদ্বে তার আর্তনাদের ভাষাটুকুও সমাজ-সংসারের কানে পৌছে না। এই পরিস্থিতিকে ভিওএসবি আখ্যায়িত করেছে- Silence Not Spoken.

আর জাগিয়ে তুলেছে কিশোরীদের কন্ঠ, যাতে তারা সন্মিলিতভাবে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারে মানব সভ্যতার এই কলংকজনক অধ্যায়- শিশু বিবাহের নামে অসংখ্য শিশুদের জীবন নাশের বিরুদ্ধে। থামিয়ে দিয়েছে এই অবৈধ কাজে সম্পৃক্তদেরও অশুভ পদচারনা।

ভিওএসবির মোট ২৫টি সিবিওর আওতায় সংগঠিত ও প্রশিক্ষিত কিশোরীরা যেমন নিজেদের জীবনকে বাল্য বিবাহের হাত থেকে সুরক্ষিত করতে পেরেছে, তেমনি গড়ে তুলেছে নিজ কম্যুনিটিতে বাল্য বিবাহের বিরুদ্বে শক্ত সামাজিক প্রতিরোধ।

সাম্প্রতিক করোনাকালেও এই সব কিশোরীদের সাথে ভিওএসবি যোগাযোগ এবং সচেতনতা বৃদ্বিমুলক কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে এবং সম্পুর্ণৃ স্বাস্থ্যবিধি মেনে অপেক্ষাকৃত পিছিয়ে পড়া ২০০ পরিবারে পৌছে দিয়েছে খাদ্য ও স্বাস্থ্র্য সুরক্ষা সংক্রান্ত উপহার সামগগ্রীর প্যাকেজ, যেখানে তার প্রজনন স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়টিও বিবেচনায় রাখা হয়েছে।

স্পেনভিত্তিক দাতা সংস্থা মুন্ডো কো-অপারেন্টি –এর সহায়তায় ১৪ই মে-২০১৯ তারিখ হতে শুরু করে প্রকল্পটি বর্তমানেও চলমান রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »