বখাটেরা পিটিয়ে হত্যা করল স্কুলছাত্রীকে

kalerkantho-logo.gif
চাঁদপুর প্রতিনিধি
চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার মানিকরাজ গ্রামে গত বৃহস্পতিবার বখাটেরা পিটিয়ে হত্যা করেছে অষ্টম শ্রেণীর মাদ্রাসাছাত্রী হালিমা আক্তারকে। বখাটে মহসিন ও মোস্তফা এই হত্যাকাণ্ড ঘটায়। ঘটনার পর মামলা হলেও পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। নিহত হালিমা ফরিদগঞ্জের লোহাগড়া মহিলা মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী ছিল।তাঁর বাবা আবদুল মান্নান ছৈয়াল জানান, প্রতিনিয়ত মেয়েকে উত্ত্যক্ত করত মহসিন নামের এক যুবক। তার ভয়ে মেয়েকে নিয়ে মা-বাবা এক বিছানায় ঘুমাত। এই নিয়ে এলাকার ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্যকে অনেকবার বলেও কোনো প্রতিকার পাননি তিনি। কিন্তু তার পরও বখাটের অত্যাচার চলতেই থাকে। বৃস্পতিবার হালিমাকে একা পেয়ে মহসিন ও মোস্তফা পিটিয়ে হত্যা করে।

হালিমার এক বান্ধবী নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, পাশের বাড়ির মৃত শাহজাহান মিজির ছেলে মহসিন মাদ্রাসায় আসা-যাওয়ার পথে প্রায়ই তাদের উত্ত্যক্ত করত। তবে মহসিন হালিমাকেই বেশি উত্ত্যক্ত করত।

এদিকে ঘটনার পর থেকে ঘাতক মহসিনের বাড়িতে কেউ নেই। সবাই ঘরে তালা দিয়ে গা-ঢাকা দিয়েছে। শুক্রবার দুপুরে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিহত হালিমা আক্তারের লাশের ময়নাতদন্ত শেষে গ্রামের বাড়িতে তার লাশ দাফন করা হয়। নিহত হালিমা চার ভাইয়ের এক বোন ছিল।

ফরিদগঞ্জ থানার ওসি নাজমুল হক বলেন, পুলিশ ঘাতকদের আটকের চেষ্টা করছে।

তথ্যসূত্র: কালেরকণ্ঠ, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৩

Advertisements