২/২, ব্লক-এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা
৮৮০-২-৮৮০-২-৯১১

মেয়েটির বিদ্যালয়ে যাওয়া বন্ধ

prothom-alo-logo
নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা | তারিখ: ২১-০৩-২০১৩
‘বখাটেরা স্কুলে যাওয়ার পথে আজেবাজে বলে। প্রায়ই স্কুলে ঢুকে বিরক্ত করে। ক্লাসরুমের দেওয়ালে আমাকে নিয়ে খারাপ খারাপ কথা লিখে রাখে। ওদের ভয়ে আব্বা-আম্মা এখন আর আমাকে স্কুলে যেতে দেয় না। সারা দিন মন খারাপ করে বাড়িতে বসে থাকি।’ হতাশা নিয়ে কথাগুলো বলল কিশোরী শারমিন (ছদ্মনাম)।এগারো-বারো বছরের এই কিশোরী খুলনার নজরুলনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রী। একই স্কুলের আরেক শিক্ষার্থী জানায়, ক্লাস শুরুর আগে থেকেই বখাটেরা স্কুলের মাঠে আড্ডা দিতে থাকে। টিফিনের সময় ও স্কুল ছুটির পরও তারা উত্ত্যক্ত করে। স্কুলের শিক্ষক ও অভিভাবকদের এ ব্যাপারে জানানো হলেও বখাটেদের অত্যাচার কমেনি।


প্রধান শিক্ষক সুষমা বালা প্রথম আলোকে বলেন, বখাটেদের কারণে ১০ থেকে ১২ দিন ধরে স্কুলে না আসায় তিনি মেয়েটির বাসায় গিয়েছিলেন। বিদ্যালয়ে মেয়েটির নিরাপত্তা দেওয়া হবে বলে তার অভিভাবকদের আশ্বস্ত করেছেন। তার পরও তাঁরা মেয়েটিকে বিদ্যালয়ে পাঠাননি। প্রধান শিক্ষক আরও বলেন, একদল ছেলে সময়-অসময়ে স্কুলে ঢুকে ঝামেলা করে। কিছু বলতে গেলে তারা ওলট-পালট কথা বলে।
এ ব্যাপারে বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতিকে জানানো হয়েছে। তিনি এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেবেন বলে জানিয়েছেন।


কমিটির সভাপতি আরজুল ইসলাম বলেন, ‘বখাটের নামধাম আমরা জানতে পেরেছি। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে দরকার হলে আমরা প্রশাসনের সাহায্য নেব।’
শারমিনের মা-বাবা প্রথম আলোকে বলেন, শিক্ষক ও বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির লোকজন নিরাপত্তা দিলে তাঁরা মেয়েকে আবার স্কুলে পাঠাবেন।

তথ্যসূত্র: প্রথমআলো, ২১ মার্চ ২০১৩

Translate »