ইভটিজিং থেকে স্কুলছাত্রীকে বাঁচাতে প্রাণ গেল কিশোরের

logo-ittefaq
কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) সংবাদদাতা

ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জে উত্তর মালিভিটা এলাকায় ইভটিজিংয়ে বাধা দেয়ায় রনি আহমেদ (১৬) নামে এক কিশোরকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এছাড়া রনির বন্ধু মো. রাজুকেও কুপিয়ে মারাত্মক আহত করেছে তারা। আহত রাজুকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় মিটফোর্ড মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।স্থানীয়রা জানায়, সোমবার সকালে দক্ষিণ মালিভিটা এলাকার এক কিশোরী স্কুলে যাওয়ার পথে মালিকান্দা এলাকার মকবুল হোসেনের ছেলে রিয়াদ হোসেন, মৃত আবুল খায়েরের ছেলে জুয়েল ও হারুন নামে তিন সন্ত্রাসী তাকে উত্ত্যক্ত (ইভটিজিং) করে। এ সময় কান্দাপাড়া ফার্নিচার্সের শ্রমিক মো. রনি আহমেদ ও তার বন্ধু মো. রাজু স্কুলছাত্রীকে রক্ষা করতে এগিয়ে আসে। এক পর্যায়ে দুইপক্ষের মধ্যে তর্কবির্তক হয়। এই ঘটনার জের ধরে ওইদিন সন্ধ্যা ৭টায় দুর্বৃত্তরা রনি আহমেদ ও তার বন্ধু রাজুকে ডেকে নিয়ে উভয়কে ছুরি দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। এলাকার লোকজন তাদের প্রথমে মিটফোর্ড মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। রনির অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গতকাল মঙ্গলবার ভোরে সে মারা যায়। নিহত রনির বাবার নাম বাসির আহমেদ। তিনি মালিভিটা খালে নৌকা চালান। ঘটনার পর থেকে দুর্বৃত্তরা পলাতক।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সাখাওয়াত হোসেন জানান, ইভটিজিংয়ে বাধা দেয়ায় দুই বন্ধুকে কোপায় সন্ত্রাসীরা। তাদের হাসপাতালে নেয়ার পর রনি মারা যায়।

তথ্যসূত্র: ইত্তেফাক, ১৭ এপ্রিল ২০১৩
Advertisements