১লা বৈশাখ-১৪২২, টিএসসি প্রাঙ্গণে যৌন হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

1st_baisakh_Harrasment_2015গত পহেলা বৈশাখ, ১৪২২ তারিখে টিএসসি চত্বর এবং সোহরাওয়ার্দী উদ্যান গেটে বাঙালীর প্রাণমেলা ও মিলনমেলা পহেলা বৈশাখে অংশগ্রহণ করা কিছু নারী যৌন হয়রানীর শিকার হয়েছেন। কিছু উচ্ছৃংখল বর্বর ৩০/৩৫জন যুবক সংগঠিত হয়ে এই মানবতাবিবর্জিত ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটায়। এ ঘটনায় জড়িতরা অনেকেই চিহ্নিত হওয়া সত্ত্বেও প্রশাসন এখনও পর্যন্ত তাদের আইনের আওতায় আনার ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। তারা নির্বিকার ভুমিকা পালন করে আসছে, দোষীদের বিচার না করে বারবার রক্ষারই চেষ্টা করছে। বিচারহীনতার ফলেই এরকম ন্যাক্কারজনক ঘটনা বেড়েই চলেছে- যা ন্যায়বিচারকামী মানুষের কাছে হতাশাজনক।
এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও দোষীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়ে গত ২০ এপ্রিল, ২০১৫ সকাল ১১:০০টায় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীবৃন্দ, শিক্ষকবৃন্দ, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব,সচেতন নাগরিকবৃন্দ, রাজনৈতিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠণ এর প্রায় ৩০০০ অংশগ্রহণকারীর অংশগ্রহণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলা থেকে কার্জন হল পর্যন্ত একটি মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
আয়োজিত মানববন্ধনে মূল্যবোধ সম্পন্ন মানুষ চাই – শ্লোগান নিয়ে জাতীয় কন্যাশিশু এডভোকেসি ফোরামের প্রায় ১০টি সংগঠনের ৩০জন প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করেন। দুপুর ১২:০০টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত এই মানববন্ধনে বর্ষবরণ উৎসবে নারী লাঞ্ছনাকারীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে বেশ কয়েকটি দাবি উত্থাপন করা হয়।

* দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ প্রক্টরের অপসারণ করার দাবি
* ক্যাম্পাসে নারীর নিরাপত্তা ও গণতান্ত্রিক পরিবেশ নিশ্চিত করার দাবি
* সকল রকমের বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের প্রচারণা ও অপসংস্কৃতি প্রচার বন্ধ করার দাবি
* হাইকোর্ট নির্দেশিত যৌন নিপীড়নবিরোধী নীতিমালা প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করার দাবি

Advertisements